উবার অ্যাপে নতুন সংযোজন উড়ন্ত ট্যাক্সি

0
191

প্রিন্ট
উড়ন্ত ট্যাক্সি আনছে উবার, এটা অনেক দিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। এবার নিদির্ষ্ট সময় ও দেশের নাম ঘোষণা দিয়েছে অ্যাপসভিত্তিক এই ট্যাক্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানটি। বিশ্বের  পাঁচটি শহরে ২০২৩ সাল নাগাদ চালু হবে ওই উড়ন্ত ট্যাক্সি। তবে এটি নিয়ে এখনো পরীক্ষা-নীরিক্ষা করছে উবার। তাই এই সেবা পুরোপুরি চালু হতে আরও ৫ বছর সময় লাগছে। বৃহস্পতিবার টোকিওতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যাপের মাধ্যমেই এই উড়ন্ত ট্যাক্সি বুক করতে হবে। এই ফ্ল্যায়িং ট্যাক্সি দেখতে হবে অনেকটা হেলিকপ্টারের মতো। তবে ভাড়া যে বেশ কিছুটা বেশিই হবে, সেটা বলাই বাহুল্য। নাসা মূলত আকাশপথে দিকনিদের্শনার কাজটি করবে অথার্ৎ তারা উবারকে দেবে কারিগরি সহায়তা।

গত সেপ্টেম্বরের শেষে  চুড়ান্ত হলেও এই নীতিমালার বিষয়ে উবারের এক মুখপাত্র বলেন, চালকদের ভিডিও ক্যামেরা ও ড্যাশ ক্যামেরার পাশাপাশি অন্য রেকডার্র ব্যবহারের অনুমতি থাকবে। তবে তা প্রকাশের অনুমতি বন্ধ করা হয়েছে।

যাত্রীদের ছবি প্রচারে নিষাধাজ্ঞা রেখে নতুন নীতিমালা তৈরি করেছে মোবাইল অ্যাপভিত্তিক যাত্রীসেবা প্রতিষ্ঠান উবার। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট লুইস এলাকায় কয়েকশ যাত্রীদের ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পর এমন নীতিমালা তৈরি করল আন্তর্জাতিক স্বীকৃত এই রাইড শেয়ারিং অ্যাপ।

২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর বাংলাদেশে অ্যাপভিত্তিক পরিবহন সেবা চালু করে উবার। কিছু দিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই পরিবহন ব্যবস্থা। ঢাকায় উবার শুরুতে প্রাইভেটকারভিত্তিক সেবা নিয়ে ব্যবসা শুরু করলেও পরবর্তীতে এর সঙ্গে যুক্ত হয় মোটরসাইকেলও। উবারের বাইরে এখন পাঠাও, ওভাই, ওবোন, সহজসহ মোবাইল নেটওয়াকের্র সহযোগিতায় বিভিন্ন রাইড শেয়ারিং অ্যাপ ব্যবহার করছেন নগরবাসীরা।

অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, ফ্রান্স, ভারত ও জাপান এই পাঁচ দেশের ঘনবসতিপূর্ণ পাঁচ শহরে চলবে ফ্লায়িং ট্যাক্সি। সম্ভাব্য শহরগুলো হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি বা মেলবোনর্; ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরো বা সাও পাওলো; ভারতের মুম্বাই, দিল্লি বা বেঙ্গালুরু এবং জাপানের টোকিও।

প্রথম দিকে যুক্তরাষ্ট্রের ডালাস ও লস অ্যাঞ্জেলেস এবং ওই পাঁচ দেশ থেকে বেছে নেয়া এক শহরে চলবে উবারের উড়ন্ত ট্যাক্সি।

উবারের সঙ্গে এই প্রকল্পকে বাস্তবায়িত করতে হাত মিলিয়েছে মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা। ২০২০ সালের মধ্যে মাকির্ন যুক্তরাষ্ট্রে চলতে শুরু করবে উড়ন্ত ট্যাক্সি।

এর আগে গত মে মাসে উবারের এক কমর্কতার্ জানান, আগামী দিনে আধুনিক শহরগুলোর প্রধান সমস্যা হতে চলেছে যানজট। তাই এখন থেকেই আমরা বিকল্প ব্যবস্থার কথা ভাবছি। আগামী দিনে আকাশপথই হবে আমজনতার যাতায়াতের অন্যতম মাধ্যম।