ফাস্ট ট্র্যাকিং এর মাধ্যেমে সহজেই মিলবে লাগেজ

0
170
প্রিন্ট

বিমানবন্দরে যাত্রীদের লাগেজ হয়রানি! এ আর নতুন কি? যাত্রীদের লাগেজ হয়রানির বন্ধ করতে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ নতুন উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে। আইসিটি খাতে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য ফাস্ট ট্র্যাক সেবা চালু করবে সরকার। এজন্য লাগেজ ট্র্যাকিং সিস্টেম উন্নয়নের প্রতি জোর দেওয়া হচ্ছে।

আইসিটি টাওয়ারে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) সম্মেলনকক্ষে বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (বিডা) এবং লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্সের (এলআইসিটি) মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ তথ্য জানান।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এবং বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বিমানবন্দরে লাগেজ নিয়ে যাত্রীদের হয়রানি বন্ধ হবে। এজন্য ‘লাগেজ ট্র্যাকিং সিস্টেম’ উন্নয়নের প্রতি জোর দেওয়া হচ্ছে। বিনিয়োগকারীদের জন্য ‘ফাস্ট ট্র্যাক সার্ভিস’ চালুর জন্য আইসিটি বিভাগের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্নেন্স (এলআইসিটি) ও বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) মধ্যে এ সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।

এ সময় পলক আরও বলেন, বিমানবন্দরে আসার পর বিনিয়োগকারীদের লাগেজ পেতেই তিনঘণ্টা লাগলে প্রথমেই একটা নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়। এটা চিহ্নিত সমস্যা। তাই লাগেজ ট্র্যাকিং সিস্টেম চালু করা হলে দ্রুত এই সমস্যার সমাধান হবে। বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম বলেন, এই চুক্তির পর বিমানবন্দরে সমস্যা কমে আসবে এবং বিনিয়োগ ত্বরান্তিত হবে বলে আশা করি।