শীর্ষে থেকেই গ্রুপ পর্ব শেষ করলো রংপুর

0
171
প্রিন্ট

রবি বোপারার, নিতান্তই ভাগ্যক্রমে রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলার  সুযোগ হয়েছিল ইংলিশ এই ক্রিকেটারের। অনেক লম্বা সময় গ্যাপে রংপুর রাইডার্সের খেলতে নামেন এই ক্রিকেটোর। তার বোলিং দাপটে গতকাল নয় উইকেটের বিশাল ব্যবধানে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়েছে রংপুর রাইডার্স। আর এই জয়ে শীর্ষে থেকেই গ্রুপ পর্ব শেষ করলো রংপুর রাইডার্স। সমানসংখ্যক ম্যাচ খেলে রংপুর রাইডার্সের এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের পয়েন্টও ১৬। অথ্যাৎ মোট ১২ টি ম্যাচ খেলে ৮ টি জয় পেয়ে ১৬ পয়েন্ট সংগ্রহ হলো উভয় দলের। যদিও রান রেটে সবার ওপরে থাকছে রংপুরের নামই। ফলে এই দুটি দলই মুখোমুখি হবে প্রথম কোয়ালিফায়ারে। আগামীকাল, চার ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি।

গতকাল টসে জিতে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই বিপদ ডেকে আনে কুমিল্লার ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই নাহিদুল ইসলামের বলে এবি ডি ভিলিয়ার্সের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ওপেনার তামিম ইকবাল। এরপর আর কখনোই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি দলটি। ফলাফল, তিন ওভার তিন বল বাকি থাকতে মাত্র ৭২ রানেই অল আউট হয়ে যায় দলটি।

রংপুর রাইডার্সে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে রবি বোপারার। মাত্র ৭ রান হজম করে ৩ ওভারে তিনি নিয়েছেন তিনটি উইকেট। তার হাতেই উঠেছে ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দুটি করে উইকেট পেয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও নাহিদুল ইসলাম। ক্যারিয়ারের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলতে নেমে লেগ স্পিনার মিনহাজুল আবেদিন আফ্রিদি মিতব্যায়ী বোলিংয়ে নিয়েছেন এক উইকেট। কুমিল্লার ইনিংসে মাত্র তিনজন ব্যাটসম্যান দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন। এর মধ্যে জিয়াউর রহমান ২১, ইংলিশ ক্রিকেটার লিয়াম ডওসন ১৮ ও শামসুর রহমান শুভ ১২ রান করেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে জবাব দিতে নেমে ৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় রংপুর। তখন দ্বিতীয় ওভারের খেলা চলছে। মাত্র ৫ রান করে সাজঘরে ফিরে যান ওপেনার মেহেদী মারুফ। তাকে সাজঘরে ফেরান বাঁহাতি অফস্পিনার সঞ্জিত সাহা। বাকিটা সময় দুই ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল ও ডি ভিলিয়ার্স কোনো বিপদ আসতে দেননি। ফলে, মাত্র নয় ওভার তিন বলেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় রংপুর। গেইল ৩৫ ও ভিলিয়ার্স ৩৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। গেইলের ৩০ বলের ইনিংসে ছিল তিনটি চার ও দুটি ছক্কা। তবে, গেইলের চেয়ে বেশি বিধ্বংসি ছিলেন ভিলিয়ার্স। তার ২২ বলের ইনিংসে ছিল চারটি চার ও দুটি ছক্কা।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামে : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: ১৬.৩ ওভারে সংগ্রহ ৭২; অলআউট (জিয়াউর ২১, লিয়াম ডওসন ১৮, শুভ ১২, রবি বোপারা ৩/৭, নাহিদুল ২/৯, মাশরাফি ২/১৮)

রংপুর রাইডার্স: ৯.৩ ওভারে ৭৬/১; গেইল ৩৫, ভিলিয়ার্স ৩৪; সঞ্জিত ১/৩২

ফলাফল: ৯ উইকেটে জয়ী রংপুর রাইডার্স