অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়তে ৩৫০০০ একর জমি অধিগ্রহণ করছে বেজা

0
175
প্রিন্ট

অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য গেল ৩ বছরে ৩৫ হাজার একর জমি অধিগ্রহণ করেছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)। ২০৩০ সালে বাংলাদেশে বিনিয়োগ ৪০ বিলিয়ন ডলারে উন্নিত করার লক্ষে ১ লাখ একর জমি অধিগ্রহন এবং লক্ষ্য বাস্তবায়ন করতেই দেশের বিভিন্ন এলাকায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার প্রকল্প গ্রহন করছে বেজা।

বেজা চেয়ারম্যান বলছেন, বিনিয়োগ মন্দা কাটাতে এই উদ্যোগ হতে পারে সবচেয়ে কার্যকর। তবে, প্রকল্পগুলো চলমান রাখাই সামনের দিনগুলোর জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। ড্রেজার থেকে এসকেভেটর, রোলার কিংবা অন্যান্য ভারি যন্ত্রপাতি সাগরের পাড়কে করেছে কর্মব্যস্ত। চলছে ভূমি উন্নয়ন, সড়ক কিংবা বাঁধ নির্মাণ। মাত্র বছর তিনেক আগেও অব্যবহৃত পড়ে থাকা দক্ষিণের এই এলাকা প্রাণ পাচ্ছে ধীরে ধীরে।

সাগরপাড়ের প্রায় ত্রিশ হাজার একর আয়তন নিয়ে গড়ে উঠছে বঙ্গবন্ধু শিল্পনগর। যেখানে, বড় বিনিয়োগের প্রস্তাব নিয়ে আসতে শুরু করেছে বিশ্বের বিখ্যাত সব উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান। এরই মধ্যে রাসায়নিক, প্রযুক্তি এবং ভারিশিল্প মিলিয়ে প্রস্তাব পাওয়া গেছে ১৪ বিলিয়ন ডলারের।

দেশি বিদেশী বিনিয়োগ বাড়াতে এক শ’ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য বাস্তবায়নে সবচেয়ে বড় এই শিল্পনগরী। যার আয়তন ৩০ হাজার একর। তবে, ২০৩০ সাল পর্যন্ত বেজার লক্ষ্য, সারাদেশে এই আয়তন এক লাখ একরে নিয়ে যাওয়া। যাতে মোট বিনিয়োগের আশা অন্তত ৪০ বিলিয়ন ডলার। কোটি খানেক মানুষের কাজের সুযোগের পাশাপাশি প্রযুক্তি নির্ভর শিল্প বিপ্লবেও বড় ভূমিকা রাখবে এই উদ্যোগ। তবে প্রশ্ন, এত বড় চাহিদা কি তৈরি হবে অর্থনীতিতে?

গেল তিন চার বছরে কাজ শুরু করেছে বেসরকারী কয়েকটি অর্থনৈতিক অঞ্চল। বেজাও অধিগ্রহণ করে ফেলেছে লক্ষ্যমাত্রার তিন ভাগের একভাগ জমি। যা বেশ খানিকটা আশ্বস্ত করেছে উদ্যোক্তাদের।