রেমিট্যান্স আহরণে বাংলাদেশের অবস্থান নবম

0
45
প্রিন্ট

২০১৮ সালে রেমিট্যান্স আহরণে শীর্ষ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৯ নম্বরে। ২০১৮ সালে বিশ্বব্যাপী প্রবাসীরা তাদের নিজ দেশে ৬৮৯ বিলিয়ন ডলার পাঠিয়েছেন, যা আগের বছরের চেয়ে ৯ শতাংশ বেশি। এই বিপুল রেমিট্যান্স আয়ের অর্ধেকের বেশি এসেছে শীর্ষ ১০টি দেশে যার পরিমান ৩৩৫ বিলিয়ন ডলার। গত বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে বাংলাদেশে ১৫. ৫ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আসায় শীর্ষ দশের মধ্যে নবম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। আগের বছর ১৩ বিলিয়ন ডলার আয় করেও একই অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। প্রায় ৭৯ বিলিয়ন ডলার আয় করে বিশ্বে এক নম্বরে রয়েছে পাশের দেশ ভারত। আর দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে রেমিট্যান্স আহরণে বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয়।

গত সোমবার বিশ্বব্যাংকের প্রকাশিত অভিবাসন ও রেমিট্যান্স বিষয়ক সর্বশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিপুল রেমিট্যান্স আয়ের সিংহভাগই গেছে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে। ২০১৮ সালে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স প্রবাহ ৯ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে, যা ২০১৭ সালে ৮ দশমিক ৮ শতাংশ। সারাবিশ্ব থেকে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলো গতবছর ৫২৯ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পেয়েছে। প্রধানত যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ প্রবৃদ্ধি এবং মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশ ও রাশিয়া ফেডারেশনের আর্থিক অবস্থার উন্নতির ফলে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে বিশ্বব্যাংক।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাপী প্রবাসীদের আয়ের পরিমাণ বেড়েছে। ২০১৮ সালে প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স প্রবাহ হয়েছে ৬৮৯ বিলিয়ন ডলার। এটি ওই বছর সারা বিশ্বে হওয়া বিদেশি বিনিয়োগের চেয়েও বেশি। ২০১৭ সালের তুলনায় ২০১৮ সালে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে ৯ শতাংশের বেশি।

বিশ্বব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী, শীর্ষ দশে রয়েছে যে দেশগুলো:

১) গতবছর সবচেয়ে বেশি ৭৮.৬ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পেয়ে ভারত প্রথম অবস্থানে রয়েছে।

২) ৬৭.৪ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চীন।

৩) ৩৫.৭ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণ করে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পার্শ্ববর্তী দেশ মেক্সিকো।

৪) ৩৩.৮ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণ করে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে ফিলিপাইন।

৫) ২৮.৯ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণ করে পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে মিসর।

৬)  আফ্রিকান দেশ নাইজেরিয়া ২৪.৩ বিলিয়ন ডলার আহরণ করে রয়েছে ষষ্ঠ অবস্থানে।

৭)  সপ্তম অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। দেশটি গতবছর ২১ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণ করেছে।

৮)  অষ্টম স্থানে রয়েছে ভিয়েতনাম। দেশটি গতবছর ১৫ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পেয়েছে।

৯)  ১৫.৫ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স আহরণ করে নবম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

১০) ১৪.৪ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স সংগ্রহ করে দশম অবস্থানে রয়েছে ইউক্রেন।