প্রবাসীদের জন্য সৌদি আরবে চালু হচ্ছে ‘গ্রিন কার্ড’

0
85
প্রিন্ট

পেশাজীবী প্রবাসীদের সরাসরি স্থায়ীভাবে সৌদি আরবে বসবাসের অনুমতি দিতে গ্রিন কার্ড চালু করছে। গতকাল বুধবার সে দেশের মন্ত্রিসভায় প্রথমবারের মতো প্রবাসীদের জন্য স্থায়ী বা অস্থায়ী ভিত্তিতে রেসিডেন্ট পারমিট দেয়ার বিধান রেখে একটি রেসিডেন্ট পারমিট আইনের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে।

সৌদি গেজেট পত্রিকা বলছে, এর আওতায় স্থায়ী বা অস্থায়ী ভিত্তিতে বসবাস করার ভিসা যারা পাবেন, তারা বিশেষ কিছু সুবিধা ভোগ করবেন।

দেশটির সংবাদমাধ্যম খালিজ টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত ইকামা’ নামে এই পরিকল্পনার আওতায় বসবাসের অনুমতি পাওয়া প্রবাসীরা দেশটিতে ব্যবসা করা ও সম্পত্তি কেনার সুযোগ পাবেন। এমনকি কোনো সৌদি স্পন্সর ছাড়াই পরিবারের সঙ্গে দেশটিতে বসবাস করতে পারবেন তারা।

বর্তমানে সৌদিতে যে ব্যবস্থা চালু আছে, তাতে সেখানে ওয়ার্ক পারমিট নিয়ে বসবাস করতে একজন সৌদি চাকরিদাতার স্পন্সরশিপের অপরিহার্যতা রয়েছে। এ ব্যবস্থার আওতায় প্রায় এক কোটি বিদেশি সৌদি আরবে বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন।

রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম বলেছেন, সৌদি আরবের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অনেক নামি-দামি বাংলাদেশি শিক্ষক আছেন। দেশটিতে অনেক নামকরা চিকিৎসক এবং প্রকৌশলী, এমনকি ব্যবসা করেও অনেকে সুনাম কুড়িয়েছেন অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিক। তারা সবাই চাইলে এ সুযোগ নিতে পারবেন, কারণ এটা করা হবে খুবই দক্ষ পেশাজীবী বা যাদের ভালো মূলধন তহবিল আছে অথবা যারা বড় ধরনের বিনিয়োগ করতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, নতুন প্রস্তাবিত ব্যবস্থা চলমান যে ইকামা বা স্পন্সর নেয়ার পদ্ধতি আছে, তা থেকে ভিন্ন, তাই এটিকে বলা হচ্ছে প্রিভিলেজড ইকামা। অর্থাৎ হাই স্কিলড ব্যক্তিরা চাইলে এ সুযোগ নিতে পারবেন। আর তাদের জন্য স্থানীয় স্পন্সর দরকার হবে না।

তবে এখনও পরিকল্পনার বিস্তারিত প্রকাশ করা হয়নি। নতুন ইকামা ব্যবস্থা নিয়ে আশাবাদী সৌদি কর্মকর্তারা। তাদের বিশ্বাস, এই ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে বেশি সংখ্যক বিনিয়োগকারী ও উদ্যোক্তাকে সৌদি আরবের প্রতি আকৃষ্ট করা সম্ভব হবে।