গ্রামীন নারীর তুলনায় শহুরে নারীদের প্রজনন ক্ষমতা দিন দিন কমছে

0
51
প্রিন্ট

অনুকূল পরিবেশ না থাকায়, উচ্চ তাপমাত্রা, খাবারের বৈচিত্র এবং ভেজাল খাবারের কারণে শহরে বসবাসকারী নারীদের প্রজননক্ষমতা দিন দিন কমে যাচ্ছে। অন্যদিকে অনুকূল পরিবেশ, নিরাপদ ও বিশুদ্ধ খাবার প্রামীণ নারীদের প্রজননহার ঠিক রেখেছে।

বর্তমানে গ্রামীণ এলাকায় নারীর প্রজননহার ৭৭ শতাংশ এবং শহরে তা মাত্র ৫৬ শতাংশ। ফলে প্রজননক্ষমতায় শহরের নারীদের তুলনায় এগিয়ে গ্রামের নারীরা।

বুধবার (১২ জুন) বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) মনিটরিং দ্য সিচুয়েশন অব ভাইটাল স্টাটিসটিকস অব বাংলাদেশ (এমএসভিএসবি) এ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। আগারগাঁওয়ের পরিসংখ্যান ভবনে প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান।

বিবিএস জানায়, ২০১৮ সালে পাওয়া মোট প্রজনন হার ২.০৫ যা ২০১৪ সালে ছিল ২.১১। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় বাংলাদেশে জন্মের হার অনেকটা স্থির অবস্থায় রয়েছে। কমে আসছে মাতৃ মৃত্যুর হার।

২০১৪ সালে মাতৃ মৃত্যুর হার ছিল ১.৯৩ শতাংশ। বর্তমানে তা কমে ১.৬৯ শতাংশ হয়েছে। বাংলাদেশে গড় মৃত্যু প্রতিহাজারে ৫ জন, যা গ্রামীন এলাকায় ৫.৪ জন এবং শহরে ৪.৪ জন। ফলে শহরের তুলনায় গ্রামে মৃত্যুর হার বেশি।