বন্যায় ঢাকার সাথে ৪ জেলার রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রিন্ট

বন্যায় ভাসছে দেশ, লাখ লাখ মানুষ এখনো পানিবন্দি হয়ে দুর্বিষহ জীবন কাটাচ্ছে। পানির তোড়ে অনেক স্থানে ভাঙন দেখা দেওয়ায় ভিটামাটি হারিয়ে কাঁদছে। এদিকে অবিরাম বর্ষণ আর উজানের পানির ঢলে উ্ত্তর বঙ্গের ৪ জেলার সাথে ঢাকার রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

জানা গেছে, অবিরাম বৃষ্টি ও বন্যায় গাইবান্ধায় রেলপথ ডুবে গেছে ফলে গাইবান্ধা, রংপুর, দিনাজপুর ও লালমনিরহাটের সাথে ঢাকার রেল যোগাযোগ গতকাল বুধবার সকাল থেকে বন্ধ হয়ে গেছে। রেললাইনে পানি জমে স্লিপার, মাটি ও পাথর সরে গিয়ে ট্রেন চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পানির তোড়ে সান্তাহার-লালমনিরহাট-রংপুর রেলপথের গাইবান্ধার বাদিয়াখালী অংশ মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এই পথে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। টানা বৃষ্টি, উজান থেকে নেমে আসা পানির ঢল এবং একের পর এক বাঁধধসের কারণে গাইবান্ধার নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

গাইবান্ধার বোনারপাড়া রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার খলিলুর রহমান জানান, রেলপথ ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় সান্তাহার থেকে ছেড়ে আসা পদ্মরাগ লোকাল ট্রেনটি বাদিয়াখালী স্টেশনে আটকা পড়ে। বিভিন্ন স্থানে রেললাইনের ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ায় একাধিক ট্রেনের যাত্রা সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ও রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন দুটি পার্বতীপুর হয়ে চলাচল করবে।

গাইবান্ধার রেললাইন রক্ষণাবেক্ষণকারী (মেষ্ট) মো. মুকবুল হোসেন জানান, গাইবান্ধার বাদিয়াখালী রেলস্টেশন থেকে তীরমোহনী রেলস্টেশন পর্যন্ত ছয় কিলোমিটার রেলপথের ওপর দিয়ে বন্যার পানি প্রবল বেগে প্রবাহিত হচ্ছে। কোনো কোনো স্থানে চার ইঞ্চি আবার কোনো কোনো জায়গায় ছয় ইঞ্চি ওপর দিয়ে এই পানি তীব্র বেগে প্রবাহিত হচ্ছে। এর ফলে কিছু জায়গায় রেললাইনের নিচের মাটি, পাথর ও স্লিপার ধসে যাওয়ায় সাময়িকভাবে এ লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।