দুই ব্যাংকের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা

প্রিন্ট

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড ও ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের পর্ষদ সভার তারিখ ঘোষণা করেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আগামীকাল (৩০ জুলাই) ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের পর্ষদ সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় চলতি হিসাব বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রথম প্রান্তিকে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ২ টাকা ৩৭ পয়সা, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৩ টাকা ১৯ পয়সা। ৩১ মার্চ এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ১১৭ টাকা ৭৯ পয়সা। ২০১৮ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিক শেষে এনএভিপিএস ছিল ৯৭ টাকা ৫৯ পয়সা।

গতকাল ডাচ্-বাংলা ব্যাংক শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ৬৯ টাকা ৩০ পয়সা, যা আগের দিনের চেয়ে ২ টাকা ১০ পয়সা বা ৩.১৩ শতাংশ বেশি। দিনভর দর ৬৭ টাকা থেকে ৬৯ টাকা ৪০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করে। সমাপনী দর ছিল ৬৮ টাকা ৮০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ৬৩ টাকা ৫০ পয়সা ও ২৩৭ টাকা ২০ পয়সা।

ডাচ্-বাংলা ব্যাংক ২০০১ সালে পুঁজিজারের তালিকাভুক্ত হয়।

ব্যাংক এশিয়ার পর্ষদ সভা ৩১ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে। সভায় চলতি হিসাব বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের (এপ্রিল-জুন) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে।

চলতি ২০১৯ হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) ব্যাংক এশিয়ার সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৬২ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ৫৩ পয়সা। ৩১ মার্চ সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়িয়েছে ২১ টাকা ৪৮ পয়সা, এক বছর আগে যা ছিল ১৯ টাকা ৩৮ পয়সা।

গতকাল ডিএসইতে ব্যাংক এশিয়া শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ১৮ টাকা। সমাপনী দর ছিল ১৭ টাকা ৮০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ১৫ টাকা ৬০ পয়সা ও ২১ টাকা ৮০ পয়সা।

ব্যাংকটির অনুমোদিত মূলধন ১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ১ হাজার ১৬৫ কোটি ৯১ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ১ হাজার ১৫৩ কোটি ৮ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৫২.৩০ শতাংশ রয়েছে

ব্যাংক এশিয়া ২০০৪ সালে পুঁজিজারের তালিকাভুক্ত হয়।