দিন দিন আস্থা হারাচ্ছে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীরা

প্রিন্ট

পুঁজিবাজারের বাজারের উপর প্রতিনিয়ত আস্থা হারাচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা৷ সোমবার শেরে বাংলানগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে “পুঁজিবাজার উন্নয়নের লক্ষ্যে অংশীজনদের সঙ্গে মতবিনিময় শীর্ষক” সভায় ডিএসই’র পরিচালক মিনহাজ মান্নান ইমন এ কথা বলেন৷

তিনি আরো বলেন, আমরা কথায় কথায় বলি বাজারের আস্থার কথা, বাজারে ভাল মানের আইপিও কথা,  ভাল মানের আইপিও আসছে না ইত্যাদি ইত্যাদি৷ আসলে ভাল মানের আইপিও বলতে কিছু নেই৷ আইপিওতে যেসব কোম্পানি আসে তাদের আর্থিক প্রতিবেদনের মান নিয়ে আমরা বলতে পারি৷ প্রসপেক্টাসে যে আর্থিক প্রতিবেদন থাকে যেটা কোম্পানি তৈরি করে৷ ইস্যু ম্যানেজার তা নিয়ে আসে এবং অডিটর সেটায় স্বাক্ষর করে বাজারে নিয়ে আসে। বাজারে আসার আগে সেই আর্থিক প্রতিবেদনে কোম্পানির যে তথ্য থাকে, আইপিও আসার ২-৩ বছর পর সেই পিকচারটা আর থাকেনা।

বিনিয়োগকারী এই জায়গায় তার আস্থাটা প্রতিনিয়ত হারাচ্ছে৷ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কাছে যে আর্থিক প্রতিবেদন আসে, তারা কিন্ত এটাকে বিশ্বাস করতে চায়৷ কিন্ত উদ্যোক্তা টাকা তুলে নেবার পরে মনিটরিং এর অভাবেই হোক আর মনিটরিং করার পরেও যদি কোম্পানির আর্থিক অবস্থা খারাপ হয় তখন বিএসইসি’র তেমন কিছু করার থাকেনা৷ তাই আগের পর্যায়ে আমরা যদি ভাল কোন ভূমিকা রাখতে পারি সেক্ষেত্রে বিনিয়োগকারী টাকাও হারাবে না, আস্থার জায়গাও ফিরে পাবে৷

ইমন একটি বিষয় আলোকপাত করে আরো বলেন, আর্থিক প্রতিবেদন সংক্রান্ত যদি কোন সন্দেহ থাকে এবং বাজারের কোন স্টেকহোল্ডার, ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান আর্থিক প্রতিবেদন সম্পর্কে কোন সন্দেহ প্রকাশ করে তবে এ সন্দেহটা উৎঘাটন করার একটি সুষ্ঠু প্রক্রিয়া আমরা আপনার কাছে চাই৷ আইপিও যেমন ভাল আসে আবার মন্দাও আসে৷ বন্ধ করতে হবে মন্দ আর্থিক প্রতিবেদন, আইপিও বন্ধ হবে না৷ কোন আর্থিক প্রতিবেদন নিয়ে কোন সন্দেহ থাকলে তাকে যেন আমরা তদন্ত করে দেখতে পারি আর এই বিষয়ে দরজা খোলা রাখার জন্য অনুরোধ করছি৷