গ্রামীণফোনের লাইসেন্স বাতিলের নোটিস প্রত্যাহার করছে বিটিআরসি

প্রিন্ট

গ্রামীণফোন লিমিটেডের লাইসেন্স বাতিলের বিষয়ে জারি করা কারণ দর্শাও নোটিস শিগগিরই প্রত্যাহার করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ টেলিকম রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি)। কোম্পানিটির কাছে সাড়ে ১২ হাজার কোটি টাকা ‘পাওনা’র দাবি করে তা আদায়ের লক্ষ্যে এই নোটিস জারি করেছিল টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

এদিকে গ্রামীণফোনের কাছে বিশাল অঙ্কের অর্থ পাওনার দাবি, টাকা আদায়ে নানামুখী চাপ এবং সর্বশেষ লাইসেন্স বাতিলের নোটিসে দেশি-বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। বিশেষ করে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীরা বিষয়টি নিয়ে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েন।

এতদিন ধরে ঝুলতে থাকা ইস্যুটির দ্রুত সমাধানের লক্ষ্যে বিটিআরসি, এনবিআর ও সংশ্লিষ্ট দুই কোম্পানি গ্রামীণফোন এবং রবিকে নিয়ে আলোচনায় বসেন অর্থমন্ত্রী। আর সেখানেই সিদ্ধান্ত হয়, আইনী পথে নয়, বরং আলোচনার মাধ্যমে সমস্যাটির সমাধান করা হবে। কোম্পানি দুটি বিটিআরসির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতে যে মামলা করেছে তা তুলে নেবে। অন্যদিকে বিটিআরসিও লাইসেন্স বাতিল করার বিষয়ে দেওয়া কারণ দর্শাও নোটিস প্রত্যাহার করবে।