ডাস্ট থেকে অ্যালার্জি প্রতিরোধে করণীয়

প্রিন্ট

অন্যান্য সময়ের তুলনায় শীতকালে রাস্তা ঘাটে বেশি ডাস্ট বা ধুলাবালি দেখা যায়। আর এই ডাস্ট বা ধুলাবালি থেকে অনেকেরই অ্যালার্জির সমস্যা হয়। ধুলাবালি কোনও রকমে নাকে, মুখে ঢুকলেই শুরু হয়ে যায় হাঁচি, কাশি। ঘর পরিষ্কারের কাজে হাত দিলেও তারা একই সমস্যায় পড়েন। এমনকি পুরনো বইয়ের গন্ধ নাকে গেলেও তাদের হাঁচি, কাশি শুরু হয়।

এ সমস্যা দূর করতে অনেকেই নিয়মিত অ্যান্টি অ্যালার্জি ওষুধ সেবন করেন। তবে ঘন ঘন অ্যান্টি অ্যালার্জি ওষুধ খেলে অনেকসময় বিপদের ঝুঁকি বাড়ে। যাদের প্রায় প্রতিদিন ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যায় পড়তে হয়, তারা অ্যান্টি অ্যালার্জি ওষুধের বিকল্প হিসেবে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। যেমন-

-বেশি করে সবুজ শাকসবজি খান। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি অ্যালার্জির প্রবণতা কমাতেও সাহায্য করে। সবুজ শাকসবজি শরীরের প্রয়োজনীয় ভিটামিন, খনিজের চাহিদা পূরণ করে।

-ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যায় গ্রিন টি খেতে পারেন। গ্রিন টি তে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান অ্যালার্জির সমস্যার সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে।

-ডাস্ট অ্যালার্জির সমস্যায় ঘি খেতে পারেন। ঘি প্রাকৃতিক ভাবে যে কোনও ধরনের অ্যালার্জির সমস্যার সঙ্গে লড়াই করতে দারুণ কার্যকরী। প্রতিদিন ১ চামচ করে ঘি খেতে পারলে ঠান্ডা লাগা বা অ্যালার্জির সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটা কমবে।

-মাথা যন্ত্রণা, বন্ধ নাক, চোখ-নাক দিয়ে পানি পড়া ইত্যাদি সমস্যা প্রতিরোধে একটি পাত্রে গরম পানি নিয়ে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা ইউক্যালিপটাস তেল ফেলে ভাপ (ভেপার) নিন। এতে বন্ধ নাক খুলে যাবে, নাকের ভিতরে অ্যালার্জির কারণে হওয়া অস্বস্তিও দূর হবে।