বাংলাদেশ বিমানে আরো দুটি উড়োজাহাজ যুক্তকরার প্রক্রিয়া চলছে

প্রিন্ট

আগামী বছর পবিত্র হজকে সামনে রেখে হজ ফ্লাইট পরিচালনার জন্য আরো দুটি বড় আকারের উড়োজাহাজ লিজ নেয়ার প্রক্রিয়া করছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।

জানা গেছে, দুটি উড়োজাহাজ লিজ নিতে গত ২৪ সেপ্টেম্বর দরপত্র আহ্বান করে বিমান। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) নীতিমালা অনুযায়ী বরাবরের মতোই এবারও দরপত্রে অংশগ্রহণকারী সংস্থাগুলোর জন্য উড়োজাহাজের বয়সসীমা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, বিমানকে দুটি উড়োজাহাজ লিজ দিতে ইতোমধ্যে মালিন্দ এয়ার সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। তবে দরপত্রে অংশগ্রহণের সময় মালিন্দ এয়ার তিন বছরের জন্য লিজ মূল্য না দিয়ে কেবল ২০২০ সাল অর্থাৎ এক বছরের জন্য মূল্য দেখিয়েছে। দরপত্র প্রস্তাবনায় সংস্থাটি ২০২১ ও ২০২২ সালের জন্য কোনো দর উল্লেখ করেনি। ভবিষ্যতে মৌখিক আলোচনার মাধ্যমে বাজারদর অনুযায়ী পুনরায় মূল্য নির্ধারণ করার প্রস্তাব দিয়েছে সংস্থাটি, যা পিপিআরের নিয়মের মধ্যে পড়ে না।

এদিকে বিমানের পরিকল্পনা বিভাগের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিডিউলে পরিবর্তন এনে নতুন যে শর্ত যোগ করা হয়েছে, তাতে গত বছরের চেয়ে ঘণ্টায় ৭৫০ ডলার বিমানকে বেশি দিতে হবে। ফলে তিন বছরে বিমানকে অতিরিক্ত ৪০ কোটি টাকা বেশি ব্যয় করতে হবে।

উল্লেখ্য যে, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বহরে বোয়িং থেকে সরাসরি কেনা ১০টি সর্বাধুনিক প্রযুক্তির উড়োজাহাজ রয়েছে। এর বাইরে লিজ চুক্তিতে আনা হয়েছে চারটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও দুটি ড্যাশ-৮ কিউ ৪০০ উড়োজাহাজ। আগামী ডিসেম্বরেই যুক্ত হচ্ছে সদ্য কেনা আরো দুটি ৭৮৭-৯ ড্রিমলাইনার।