করোনার প্রভাবে হজ কার্যক্রম স্থগিত হলে হজযাত্রীদের অর্থ ফেরত দেবে সৌদি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে চলতি বছরের পবিত্র হজ কার্যক্রম বাতিল হয়ে গেলে কী করণীয় সে বিষয়ে বিবৃতি দিযেছে সৌদির ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়। শুক্রবার (২৭ মার্চ) সৌদির ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী ফছরুল রাজী এক বিবৃতিতে বলেছেন, শেষ পর্যন্ত হজ বাতিল হয়ে গেলে করণীয় বিষয়ে আমরা একটি পরিকল্পনা তৈরি করেছি।

তিনি বলেন, সৌদি সরকার এই হজ বাতিল করতে পারে। কারণ বর্তমানে দুটি ইসলামিক পবিত্র শহর মক্কা ও মদিনায় যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পবিত্র শহর দুটিতে হজে বিশাল সমাবেশ হয়। সৌদি আরব ১৫ মার্চ থেকে দেশটিতে এবং বিদেশে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট স্থগিত করেছে।

ফছরুল রাজী বলেন, সৌদি আরব যদি এই নিষেধাজ্ঞাগুলি দীর্ঘায়িত করে এবং অবশেষে বার্ষিক তীর্থযাত্রা বন্ধ করে দেয় সরকার হজযাত্রীদের সমস্ত ভ্রমণের অর্থ ফেরত দেবে। মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর প্রায় ২২১,০০০ হজযাত্রী হজে যাবেন।

তবে, ফছরুল রাজী হজযাত্রীদের ১৯ ই মে অবধি পুরোপুরি তাদের হজ যাত্রার খরচ পরিশোধ করতে বলেছেন। কারণ সৌদি সরকারের তরফে এখনও কোনও বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়নি (হজ বন্ধরে বিষয়ে)।

মন্ত্রী জানান, শুক্রবার পর্যন্ত ৮৩,৩৩৭ হজযাত্রীরা তাদের ব্যয়ের জন্য অর্থ প্রদান করেছেন।

image_printপ্রিন্ট করুন
শেয়ার করুনঃ