এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা রমজানে হতে পারে

করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে রোজার মধ্যে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে। গতকাল শনিবার বিকালে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক এ কথা জানান।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি কোন দিকে যাবে এখনো বলা যাচ্ছে না। তবে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয় এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেবে না সরকার। আমাদের একটি প্রাথমিক ভাবনা হচ্ছে- পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার অন্তত ১৫ দিন পর পরীক্ষা শুরু করার।

বোর্ডকে আবার নতুন করে পরীক্ষা সূচি তৈরি করতে হবে। এ ছাড়া পরীক্ষা গ্রহণের সব প্রস্তুতি আছে। পরীক্ষা কবে হবে তা নিয়ে উৎকণ্ঠায় না থেকে শিক্ষার্থীদের বাসায় মনোযোগ দিয়ে লেখাপড়ার আহ্বান জানান তিনি।

চেয়ারম্যান আরও বলেন, ১ এপ্রিল এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর যে রুটিন ছিল, তাতে শেষের কয়েকটি পরীক্ষা রোজার মধ্যে পড়েছে। এমন তো নয় যে রোজায় পরীক্ষা নেওয়া যাবে না।

গত ১ এপ্রিল থেকে এ বছরের এইচএসসি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটায় পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। একই কারণে ১৬ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রয়েছে। অর্থাৎ, ২৭ দিনের ছুটিতে রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

শিক্ষাবর্ষের ক্যালেন্ডার অনুযায়ী অন্যান্য ছুটি কমিয়ে করোনার ছুটিতে লেখাপড়ার ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব বলে মনে করেন জিয়াউল হক। তিনি বলেন, ২৫ এপ্রিল থেকে রোজা উপলক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোয় এক মাসের ছুটি রয়েছে। করোনা সংক্রমণ এড়াতে এ ছুটি এবার একটু আগেই শুরু হয়েছে। আমি মনে করি সামনের ছুটিগুলো কমিয়ে ক্লাস নিয়ে এ ক্ষতি পোষানো সম্ভব। বাড়তি ক্লাস নেওয়ার সুযোগের জন্য এইচএসসি পরীক্ষা দিনে দুই শিফটে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

image_printপ্রিন্ট করুন
শেয়ার করুনঃ