বায়ুদূষণে শীর্ষে বাংলাদেশ, নিকৃষ্ট বায়ুতে ঢাকা শহরের অবস্থান দ্বিতীয়

২০১৯ সালের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বাংলাদেশকে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত দেশ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে বায়ুদূষণ নিয়ে কাজ করা সংস্থা আইকিউ এয়ার ভিজ্যুয়াল। আর শহর হিসেবে ঢাকা রয়েছে বিশ্বের দ্বিতীয় নিকৃষ্ট বায়ুর শহরের তালিকায়। এ তালিকায় বাংলাদেশ ও ঢাকা গতবারও একই অবস্থানে ছিল।

গতকাল মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিশ্বের বায়ুর মান প্রতিবেদন-২০১৯ শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। ২০১৯ সালে বিশ্বের ৯৮টি দেশের সার্বক্ষণিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণ করে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও সুইজারল্যান্ডভিত্তিক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার থেকে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে। মূলত বাতাসে প্রতি ঘনমিটারে মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর সূক্ষ্ম বস্তুকণা পিএম-২.৫-এর পরিমাণ দেখে তালিকাটি করা হয়েছে।

তালিকায় ৮৩.৩ পয়েন্ট নিয়ে সবার প্রথমে অর্থাৎ সবচেয়ে দূষিত দেশ হিসেবে স্থান করে নিয়েছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে ৬৫.৮ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে পাকিস্তান। তৃতীয় মঙ্গোলিয়া এবং চতুর্থ স্থানে রয়েছে আফগানিস্তান। আর তালিকার ৫ নম্বরে রয়েছে প্রতিবেশী ভারতের নাম।

বায়ুদূষণের দেশ হিসেবে পঞ্চম অবস্থানে থাকলেও দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় সবার উপরে রয়েছে দিল্লি। তৃতীয় মঙ্গোলিয়ার উলানবাটর আর চতুর্থ শহর আফগানিস্তানের কাবুল। পাঁচ নম্বরে রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৮ সালের তুলনায় গত বছর ভারত ও চীনে বায়ুদূষণ কমেছে যথাক্রমে ২০ ও ৯ শতাংশ। কিন্তু তারপরও এই দুটি দেশের বায়ুর মান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানমাত্রার চেয়ে কয়েক গুণ বেশি খারাপ। অর্থনৈতিক মন্দার কারণে ভারতে বায়ুদূষণ কমতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ মূলত ২০১৮ সাল থেকে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত বায়ুর দেশের তালিকায় শীর্ষে উঠে আসে। গত এক বছরে একাধিকবার বায়ুদূষণ রোধে সরকারের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থাগুলোকে উদ্যোগ নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন উচ্চ আদালত। দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারি সংস্থা পরিবেশ অধিদপ্তর বায়ুদূষণ রোধে বেশ কিছু উদ্যোগও নেয়।

এদিকে, গত কয়েক দিন ধরে এমনকি বুধবার সকালেও বিশ্বের দূষিত বাতাসের শহরের তালিকায় সবচেয়ে খারাপ অবস্থানে (শীর্ষে) রয়েছে ঢাকা। আজ সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) ঢাকার স্কোর ছিল ২৩৭। যার অর্থ হচ্ছে এ শহরের বাতাসের মান ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’ এবং এ অবস্থায় সবাই মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যার মুখোমুখি হতে পারেন।

image_printপ্রিন্ট করুন
শেয়ার করুনঃ