কালোবাজারি বন্ধে ট্রেনের টিকেট কিনতে লাগবে জাতীয় পরিচয়পত্র

0
272
প্রিন্ট

ট্রেনের টিকেট কালোবাজারি বন্ধ করতে এবং স্টেশন মাস্টারদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে টিকিট কেনার ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর বাধ্যতামূলক করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন নবনিযুক্ত রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। গতকাল রবিবার রেল ভবনের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় রেলের সচিব মোফাজুল হোসেন, অতিরিক্ত সচিব মজিবুর রহমান, প্লানিং অফিসার জাহাঙ্গীর হোসেন, এ ডি জি আর এইচ সামসুর জামানসহ অন্য কর্মকর্তারা মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, গত দশ বছরে রেলের প্রতি মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস বাড়লেও টিকেট কালোবাজারির কারণে সব অর্জন, সুনাম নষ্ট করে দিয়েছে কালোবাজারিরা। রেলওয়ে সেবা খাতের বদনাম হচ্ছে, আমি চাই এটি বন্ধ হোক। এনআইডি বা জন্মনিবন্ধন নম্বর দিয়ে ট্রেনের টিকিট কেনাবেচা হলে কালোবাজারিদের দৌরাত্ম্য বন্ধ হবে বলেও মনে করেন তিনি। তিনি আরো বলেন, টিকিট কালোবাজারি বন্ধ, দক্ষ জনবল নিয়োগ এবং মনিটরিং ব্যবস্থায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হবে।

নিরাপদ ও অভিযোগহীন যাত্রীসেবা দেওয়াই মূল চ্যালেঞ্জ হিসেবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, চাহিদার সঙ্গে যখন বাস্তবতার সামঞ্জস্য  থাকে না তখন টিকিট কালোবাজারি হয়। এ কারণেই রেল স্টেশন মাস্টারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে এনআইডি দিয়ে টিকিট কেনার পদ্ধতি শুরু করা প্রয়োজন। রেলের সেবা আরও কীভাবে বাড়ানো যায় সে বিষয়ে দ্রুত উদ্যোগ নেয়া হবে বলেও জানান নুরুল ইসলাম সুজন।

তিনি বলেন, একটি এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে প্রতিদিন একবারই টিকিট সংগ্রহ করা যাবে এবং একটি এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বরের বিপরীতে সর্বোচ্চ ৪টি টিকিট সংগ্রহ করা যাবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরু থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকেট এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে কেনার পদ্ধতি পরীক্ষামূলকভাবে চালু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম রেল স্টেশনের কাউন্টারেও সোনার বাংলার এক্সপ্রেসের টিকিট কিনতে এনআইডি অথবা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিতে হচ্ছে যাত্রীদের।