মোবাইল নম্বর ক্লোন করে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি

প্রিন্ট

সমাজের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের মোবাইল নম্বর ক্লোন করে বিভিন্ন অপরাধের ঘটনা বেড়েই চলেছে। দিনে রাতে শীর্ষ সন্ত্রাসীর নাম করে বড় অংকের টাকা দাবি করা হচ্ছে। কেউ কেউ ভয়ে বিকাশের মাধ্যমে টাকা দিয়েও দিচ্ছে। আবার কেউ টাকা না দিতে চাইলে তার ছেলে মেয়ে কোন স্কুল কলেজে পড়ে তার বিস্তারিত ঠিকানা বলছে। টাকা না দিলে তাদের অপহরণ করার হুমকি পর্যন্ত দিচ্ছে। বিশেষ করে ভারতে পালিয়ে থাকা শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নাম বেশি ব্যবহার করা হচ্ছে। ঈদ সামনে রেখে এ ধরনের ঘটনা ক্রমাগত বাড়ছে।

বিষয়টি নিয়ে বিটিআরসি এক কর্মকর্তা বলেছেন, বিটিআরসির কলসেন্টারে-১০০ তে বহু অভিযোগ জমা পড়েছে। সাইবার অপরাধ দমন কমিটিকে এসব অভিযোগের বিষয়ে জানানো হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে। কোথা থেকে কল আসছে, সিম ক্লোন করে নতুন সিম তৈরি করছে এসব বিষয়ে তারা খোঁজ খবর করছে। মুশকিল হচ্ছে যারা হুমকি দিচ্ছে কোন সময় একটি নাম্বার ব্যবহার করছে না। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নাম্বার ব্যবহার করছে। ফলে তাদের শনাক্ত করা একটু সময় সাপেক্ষ বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এ বিষয়ে বিটিআরসি সজাগ রয়েছে।

সম্প্রতি একটি অপরাধী চক্র সরকারের মন্ত্রী, এমপি, সচিব, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের কর্মকর্তাসহ গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের মোবাইল নম্বর ‘সিম ক্লোনের’ মাধ্যমে হুবহু একই নম্বর থেকে কল করে বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি, বদলি, টেন্ডারবাজিসহ বিভিন্ন অপরাধ করছে। বেশকিছু দিন ধরে এই ধরনের প্রতারণা করে আসছে। পুলিশ কর্মকর্তাদের মোবাইল নাম্বার ক্লোন করে থানা থেকে আসামি ছাড়িয়ে নেয়ার মত ঘটনাও ঘটেছে। এ ঘটনার পর পুলিশ বিষয়টি নিয়ে মাঠে নামে। সম্প্রতি প্রতারক চক্রের কয়েকজনকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ। প্রতারক চক্র কিভাবে নম্বর ঠিক রেখে সিম ক্লোন করে সেটা খুঁজে দেখার জন্য পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ কাজ শুরু করে।

বিটিআরসি বাজারের নকল বা ক্লোন করা মোবাইল হ্যান্ডসেটের বিরুদ্ধে আগামীকাল ১ আগস্ট থেকে অভিযান শুরু করবে। আইএমইআই (ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইক্যুপমেন্ট আইডেন্টিটি) যাচাই ছাড়া মোবাইল হ্যান্ডসেট না করার জন্যও বিটিআরসি গ্রাহকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে।